অনলাইন ব্যাংকিংঅভিবাসনটেকনোলজিব্যাংকিং

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি? ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন সম্পর্কে বিস্তারিত

বাংলাদেশের প্রবাসীদের জন্য অর্থ লেনদেনের সবচেয়ে পছন্দনীয় মাধ্যম হচ্ছে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি এবং এর বিস্তারিত সার্ভিস সমূহ জেনে নিন এখানে।

অর্থের প্রসার গোটা পৃথিবীজুড়েই। বর্তমান পৃথিবীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক লেনদেন অপরিহার্য। তাই প্রয়োজন হয় বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্সিয়াল কোম্পানি প্রতিষ্ঠানের। এমন অসংখ্য ফিন্যান্সিয়াল প্রতিষ্ঠানের মধ্যে নিজেকে শীর্ষে অবস্থান করিয়েছে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন। 

বাংলাদেশের প্রায় ১ কোটিরও বেশি প্রবাসী রয়েছে। নিরাপদে দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর অন্যতম সহজ মাধ্যম হিসেবে প্রবাসীদের মধ্যে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন ব্যবহারের প্রবণতা দেখা যায়। তাই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি, সার্ভিস সমূহ, ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন একাউন্ট খোলার নিয়ম, টাকা পাঠানো ও উত্তোলন, কত টাকা পাঠানো যায় এবং ট্রানজেকশন ফি এর সকল তথ্য পাবেন এই আলোচনায়।

সূচিপত্রঃ

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি?

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন (Western Union) একটি আমেরিকান মাল্টিন্যাশনাল ফিন্যান্সিয়াল কোম্পানি (Multinational Financial Company)। এটি বিশ্বব্যাপী অর্থ লেনদেনের করার কাজ করে থাকে। বহুদিন আগে থেকেই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন বিদেশ থেকে অর্থ লেনদেনের অন্যতম মাধ্যম। পৃথিবীর ২০০ টিরও বেশি দেশ থেকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে টাকা গ্রহণ ও পাঠানো যায়।

বিশেষ করে  আজ থেকে প্রায় বছর পূর্বে প্রবাসীদের জন্য দেশে অর্থ লেনদেনের তেমন কোন মাধ্যম ছিল না। বিদেশে অর্থ উপার্জনের পর তা পরিবারের কাছে পাঠাতে নানান সমস্যার সৃষ্টি হতো। তখন ২০০৬ সালের দিকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন হয়ে ওঠে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় টাকা পাঠানোর ফিনান্সিয়াল কোম্পানি।

পূর্বে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের গ্রাহকদের সরাসরি নিকটস্থ কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে লেনদেন করতে হতো। বর্তমানে ওয়েবসাইট এবং মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে লেনদেন করার বিশেষ সুবিধা রয়েছে। 

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এক দেশ থেকে অন্য দেশে টাকা পাঠানোর একটি সহজ ও বিশ্বস্ত মাধ্যম হয়ে উঠেছে। প্রবাসীদের অধিকাংশই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন ব্যবহার করে রেমিট্যান্সের অর্থ দেশে পাঠান।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন বিভিন্ন ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযুক্ত সেবা দিয়ে থাকে। তবে কোন ব্যাংক বা সংস্থার প্রতিনিধি হয়ে অর্থ গ্রহণ ও প্রদান করে না। 

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন একাউন্ট খোলার নিয়ম

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন ব্যবহার করার জন্য প্রথমেই গ্রাহককে একটি একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। বর্তমানে ৩ টি উপায়ে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন একাউন্ট খোলা যায়। যথা-

  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট অফিসে উপস্থিত হয়ে।
  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে।
  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে।

এখান থেকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিভাবে একাউন্ট খুলবেন। এজেন্ট থেকে একাউন্ট খুলতে চাইলে সরাসরি আপনার নিকটস্থ এজেন্টে যোগাযোগ করুন। এছাড়া ওয়েবসাইট এবং মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে কিভাবে একাউন্ট খুলবেন তা ছবিসহ ধাপে ধাপে নিচে দেখানো হলো-

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একাউন্ট খোলার নিয়ম

সরাসরি ওয়েবসাইট থেকে একাউন্ট খোলার জন্য আপনার মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে ভিজিট করুন- ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন রেজিস্টার। তারপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন-

ধাপ ১: রেজিস্টার করুন

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের একাউন্ট রেজিস্টার করা খুবই সহজ। এখানে আপনার ইমেইল ঠিকানা (Email Address) এবং একটি নতুন পাসওয়ার্ড (Password) লিখুন। একাউন্ট খোলার মাধ্যমে আপনি তাদের টার্মস এন্ড কন্ডিশন ও পলিসির সাথে একমত বলে গণ্য হবেন। তারপর, জয়েন নাও (Join Now) বাটনে ক্লিক করুন।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একাউন্ট খোলার নিয়ম. ধাপঃ ১

ধাপ ২: ইমেইল ভেরিফিকেশন

ওয়েবসাইটে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিংবা মোবাইল অ্যাপসেও ইমেইল ভেরিফাই করতে হবে। আপনার দেওয়া ইমেইল এড্রেসে একটি ৪ সংখ্যার যাচাইকরন কোড (Verification Code) পাঠানো হবে। ইমেইল ইনবক্স থেকে সেই কোড নিয়ে ওয়েবসাইট পেইজে লিখুন। তারপর জয়েন নাও (Join Now) বাটনে ক্লিক করলে আপনার একাউন্ট ভেরিফাই হয়ে যাবে।  

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একাউন্ট খোলার নিয়ম. ধাপঃ ২

ধাপ ৩: প্রোফাইল সেটআপ 

একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হলে একাউন্টে সাইন ইন করে লেনদেন করতে পারবেন। তবে সকল সুবিধা ভোগ করতে আপনার ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন প্রোফাইলে সকল তথ্য দিন। তার জন্য ড্যাশবোর্ড থেকে প্রোফাইল অপশনে ক্লিক করুন। 

ওয়েবসাইটে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিংবা মোবাইল অ্যাপসে হলেও একটি নতুন পেজ দেখতে পাবেন। সেখানে ধারাবাহিকভাবে-

  • আপনার নামের প্রথম অংশ ও শেষ অংশ (First name and Last name) লিখুন।
  • আপনার ঠিকানার ঠিকানার সম্পূর্ণ তথ্য দিন। (সড়ক/মহল্লা/হোল্ডিং নম্বর (Street), শহর (City), বিভাগ (State), কান্ট্রি কোড সহ মোবাইল নাম্বার লিখুন।)
  • আপনার জন্ম তারিখ লিখুন। 
  • সর্বশেষ আপনার ইমেইল একাউন্ট দেখতে পাবেন। প্রয়োজনে এডিট (Edit) অপশনে ক্লিক করে তার পরিবর্তন করুন।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একাউন্ট খোলার নিয়ম. ধাপঃ ৩

তারপর, সেভ (Save) বাটনে ক্লিক করুন।

এভাবে একাউন্ট খোলার পর সেন্ড মানি (Send Money), পিক আপ ক্যাশ (Pick up Cash) সহ সকল সুবিধা পাবেন।

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে একাউন্ট খোলার নিয়ম

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের নিজস্ব মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে। মোবাইলে একাউন্ট রেজিস্টার করা ওয়েবসাইটে রেজিস্টার করার মত অনুরূপ। 

প্রথমে, গুগল প্লে-স্টোর থেকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন: সেলফ সার্ভিস অ্যাপসটি ইন্সটল করুন। তারপর তাতে প্রবেশ করে জয়েন নাও (Join Now) অপশন থেকে ওয়েবসাইটে রেজিস্টার করার মত অনুরূপ ভাবে চেষ্টা করুন। একইসাথে আপনার প্রোফাইলের সকল তথ্য আপডেট করুন।

মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার ওয়েবসাইট ব্যবহার থেকে বেশি সহজলভ্য। অধিকাংশ ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন গ্রাহক লেনদেনের জন্য বর্তমানে মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে থাকেন।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের সেবা সমূহ 

বর্তমানে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি কি মাধ্যমে অর্থ পাঠানো (Send Money), অর্থ গ্রহণ (Receive Money) করা যায়, তার অভ্যন্তরে বিভিন্ন সেবা চালু রেখেছে। যেমন-

  • ওয়ার ট্রান্সফার (Wire transfer)/ ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট (Western Union Agent)
  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন মোবাইল অপারেটিং (Western Union Mobile Operating)
  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন সোশ্যাল কানেক্ট (Western Union Social Connect)

এছাড়াও অন্যান্য সাধারণ অনলাইন ব্যাংকিং সেবা দিয়ে থাকে। এ সকল সেবাগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক-

(১) ওয়ার ট্রান্সফার (Wire transfer)/ ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট (Western Union Agent)

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন গ্রাহক অনলাইনে এজেন্টের মাধ্যমে বা ব্যক্তিগতভাবে অর্থ পাঠাতে পারবে। এক্ষেত্রে এজেন্ট অফিস থেকে টাকা পাঠানোর সময় ১০ সংখ্যার একটি মানি ট্রান্সফার কন্ট্রোল নম্বর (Money Transfer Control Number- MTCN) দেওয়া হয়। 

এছাড়াও রিসিভার (Receiver) শনাক্তকরণের জন্য আরও কিছু গোপন প্রশ্ন ব্যবহার করা হয়। পৃথিবীর প্রায় ২০০ টিরও বেশি দেশে যেকোনো ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট অফিসে গিয়ে রিসিভার হিসেবে টাকা সংগ্রহ করতে পারবেন।

(২) ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন মোবাইল অপারেটিং (Western Union Mobile Operating)

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন আন্তর্জাতিক মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থা সহজ করে দিয়েছে। বিশ্বের অন্যতম একটি মোবাইল অপারেটিং বাণিজ্য সংস্থা – জিএসএম অ্যাসোসিয়েশন (GSM Association)। এটি বিশ্বের ২১৮টি দেশে প্রায় ৭০০ টি মোবাইল অপারেটরের কোম্পানির প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে। 

জিএসএম অ্যাসোসিয়েশন এর এই বিশাল গ্রাহক শ্রেণীর কাছে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দেওয়া একটি যোগোপযোগী উদ্ভাবন। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন তাই জিএসএম অ্যাসোসিয়েশনের সাথে যুক্ত হয়ে এই সেবা দিচ্ছে।

আধুনিক যুগে মোবাইল এবং সিম অপারেটরের সহযোগীতাকে কাজে লাগিয়ে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন দাঁড় করিয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং এর সহজ বাণিজ্য।

(৩) ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন সোশ্যাল কানেক্ট (Western Union Social Connect)

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের বর্তমানে সোশ্যাল কানেক্টের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক লেনদেন করা যায়। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের এই পরিষেবায় ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং (Instant Messaging) অ্যাপস- উইচ্যাট (WeChat) ও ভাইবার (Viber) এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। এই সেবা পেতে পূর্বেই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি এবং তার সার্ভিস সমূহ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিবেন।

এই চুক্তি অনুযায়ী উইচ্যাট ও ভাইবার ব্যবহারকারীরা ২০০ টির বেশি দেশে তাৎক্ষণিক ১০০ ডলার পর্যন্ত পাঠাতে পারবো। এক্ষেত্রে এক্সচেঞ্জ ফি – প্রতি ১০০ ডলারে ৩.৯৯ ডলার ফি দিতে হবে। এর চেয়ে বেশি টাকা পাঠাতে চাইলে একই হারে এক্সচেঞ্জ ফি বাড়বে।

প্রবাসীরা ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে কিভাবে দেশে টাকা পাঠাবেন 

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের লেনদেন কার্যক্রম গ্রাহকদের জন্য অত্যন্ত সহজ করা হয়েছে। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের প্রবাসীদের টাকা পাঠানোর জন্য আলাদা কোন নিয়ম নেই। এই  মাধ্যমে  টাকা পাঠানোর জন্য নিকটস্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন অফিসে বা এজেন্ট এর কাছে যেতে হবে। তারপর- 

  • এজেন্টকে টাকা প্রাপকের নাম বলুন।
  • টাকা প্রাপ্তির মাধ্যম (ব্যাংক, এজেন্ট নাকি মোবাইল ওয়ালেট) জানান।
  • এজেন্টের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে চাইলে লেনদেনের তথ্য একটি ফরমে ইতিবদ্ধ করতে হয়। ফরমে সাধারণত প্রাপকের নাম, ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট, মোবাইল নাম্বার, লেনদেনের পরিমাণ ইত্যাদি তথ্য দিতে হয়।

তারপর এজেন্ট সেই তথ্য অনুযায়ী টাকা পাঠিয়ে দিবে। লেনদেন সম্পন্ন হলে একটি এমটিসিএন নাম্বার (MTCN Number) দিবে। এই এমটিসিএন নাম্বার ব্যবহার করে রিসিভার গ্রাহক অর্থ উত্তোলন করতে পারবে। 

এছাড়াও মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের টাকা পাঠানো যায়।

ওয়েস্টার্ণ ইউনিয়ন অ্যাপের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর নিয়ম 

মোবাইল অ্যাপ বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর জন্য একাউন্টে অবশ্যই পর্যাপ্ত ব্যালেন্স থাকতে হবে। ব্যালেন্স থাকলে প্রথমে ইমেইল এড্রেস ও পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনার একাউন্টে লগইন করুন। তারপর নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন-

ধাপ ১: লেনদেনের তথ্য 

একাউন্টের ড্যাশবোর্ড থেকে সেন্ড মানি (Send Money) অপশনে গেলে একটা ছোট ফরম আসবে। সেখানে-

  • যে দেশে টাকা পাঠাতে চান সেই দেশ সিলেক্ট করুন।
  • কত টাকা পাঠাতে চান তার পরিমাণ লিখুন। (যেই মুদ্রায় পাঠাবেন ও যে মুদ্রায় পাবে তার হিসেব দেখতে পাবেন)। টাকার পরিমাণ লেখার পর নতুন ফরম আসবে।

ধাপ ১: লেনদেনের তথ্য 

ধাপ ২: লেনদেনের মাধ্যম

  • আপনি কোন মাধ্যমে টাকা পাঠাতে চান – এজেন্ট, ব্যাংক একাউন্ট নাকি বিকাশ তা সিলেক্ট করুন। 
  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি পদ্ধতিতে টাকা পাঠাবেন সিলেক্ট করুন।

এবার নিচে আপনার ট্রান্সফার ডিটেইলস (Transfer Details) দেখাবে। সেখানে নেক্সট (Next) বাটনে ক্লিক করুন। একটি পপ-আপ মেসেজ আসবে, সেখানে কন্টিনিউতে (Continue) ক্লিক করুন।

ধাপ ৩: প্রাপকের তথ্য দিন

এই পেজে, যিনি টাকা রিসিভ করবেন তার নামের প্রথম ও শেষ অংশ এবং মোবাইল নাম্বার লিখুন। তারপর ধারাবাহিকভাবে-

  • লেনদেনের কারণ (Transaction Purpose);
  • প্রাপকের সাথে আপনার সম্পর্ক;
  • প্রাপকের ঠিকানা;
  • প্রাপকের জাতীয়তা;
  • মোবাইল নাম্বার;
  • জন্ম তারিখ ইত্যাদি তথ্য দিয়ে নেক্সট (Next) বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৪: সেন্ডিং ডিটেইলস চেক করুন

এবার আপনার টাকা পাঠানোর সকল ডিটেলস তথ্য দেখতে পাবেন। কোন তথ্য সঠিক না হলে পুনরায় তা এডিট (Edit) করে সাবমিট করুন। তারপর ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি কি টার্মস এন্ড কন্ডিশন (Terms and Conditions) নির্দেশ করে তা পড়ে এগ্রি (Agree) বক্সে ক্লিক করে নেক্সট (Next) ক্লিক করুন।

ধাপ ৫: সেন্ড মানি করুন

এবার আপনি যেই ব্যালেন্স থেকে টাকা পাঠাবেন তার তথ্য দিন। যদি সরাসরি একাউন্ট থেকে টাকা পাঠান তাহলে একাউন্টের তথ্য দিন। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কার্ড থেকে পেমেন্ট করলে কার্ডের তথ্য দিন। তারপর পে নাও (Pay now) অপশনে ক্লিক করে পরবর্তী ধাপে যান।

ধাপ ৫: সেন্ড মানি করুন

ধাপ ৬: ওটিপি ভেরিফিকেশন

আপনার ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন একাউন্টে যুক্ত করা মোবাইল নাম্বারে একটি ওটিপি (OTP) কোড আসবে। সেটি এই পেজে সাবমিট করে ব্যালেন্স ট্রান্সফার সম্পন্ন করুন।

ব্যাস, ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিভাবে অ্যাপের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যায় তা উপরোক্ত আলোচনায় জানলাম।

লেনদেন সম্পন্ন হবার পর একটি পেমেন্ট মেসেজ আসবে। আপনার ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন একাউন্ট ব্যালেন্স ও লেনদেনের ডিটেইলস দেখতে পাবেন। 

একইসাথে ১০ সংখ্যার একটি এমটিসিএন (MTCN) নাম্বার পাবেন। যার মাধ্যমে আপনার ট্রানজেকশন ট্র্যাকিং করতে পারবেন। প্রাপক সেই টাকা রিসিভ করতেও এই এমটিসিএন (MTCN) নাম্বারটি প্রয়োজন হয়।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন থেকে টাকা তোলার নিয়ম

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের লেনদেনের ক্ষেত্রে দুটি পক্ষ থাকে। টাকা প্রদানকারী (Sender) ও টাকা গ্রহণকারী (Receiver)। যখন কেউ ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে টাকা পাঠায়, তখন রিসিভার বেশ কয়েকটি উপায়ে সেই টাকা উত্তোলন করতে পারে। যেমন-

  • ক্যাশ পিক আপ (Cash Pick Up) বা নগদ গ্রহণ;
  • ব্যাংক একাউন্টের (Bank Account) মাধ্যমে;
  • মোবাইল ওয়ালেট (Mobile Wallet) – এর মাধ্যমে টাকা উত্তোলন।

এসবের মাধ্যমে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিভাবে টাকা উত্তোলন করবে তা নিচে দেওয়া হলো:

ক্যাশ পিক আপ (Cash Pick Up) বা নগদ গ্রহণ

ক্যাশ পিক আপ পয়েন্ট (Cash Pick Up Point) বা এজেন্ট অফিসের মাধ্যমে নগদে টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। এই পদ্ধতিতে লেনদেন করলে টাকা প্রেরণের পর মুহূর্তেই প্রাপক তা উত্তোলন করতে পারবে।

টাকা উত্তোলনের জন্য, যে ব্যক্তির নামে পাঠানো হয়েছে তার জাতীয় পরিচয়পত্র সহ এজেন্ট অফিসে উপস্থিত হতে হবে।

ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন

ব্যাংক একাউন্ট এর মাধ্যমে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন থেকে লেনদেন করা সবচেয়ে জনপ্রিয়। এ পদ্ধতিতে টাকা পাঠানোর পর সরাসরি প্রাপকের ব্যাংক একাউন্টে জমা হয়। তারপর একাউন্টের ধরন অনুযায়ী চেক বইয়ের (Check Book) মাধ্যমে বা অনলাইন ব্যাংকিং (Online Banking) করে সেই টাকা ব্যবহার করতে পারবেন।

ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠানোর জন্য অর্থ প্রদানকারীর নিম্নোক্ত তথ্যগুলো লাগবে –

  • ব্যাংকের নাম;
  • প্রাপকের ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার;
  • ব্যাংক হিসাবধারীর নাম;
  • কোড নাম্বার।

এ সকল তথ্য অনুযায়ী সেন্ডার (Sender) ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠাতে পারবে।

মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন

বর্তমানে মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থা সারা দেশব্যাপী খুবই সহজলভ্য। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের টাকা এখন দেশের মোবাইল ওয়ালেট গুলোর মাধ্যমেও উত্তোলন করা যাবে। এজন্য প্রয়োজন হবে অর্থ প্রদানের পর প্রাপ্ত এমটিসিএন নাম্বার (MTCN Number)।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিংবা এজেন্ট থেকে মোবাইল ওয়ালেটে রেমিট্যান্স অপশনে গিয়ে অর্থ যুক্ত করতে পারবেন।

ডিবিবিএল এটিএম এর মাধ্যমে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের রেমিট্যান্স তোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড (Dutch Bangla Bank Limited) এর এটিএম বুথ (ATM Booth) ব্যবহার করে তাৎক্ষনিকভাবে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। তার জন্য প্রথমে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন থেকে পাঠানো টাকা ডাচ বাংলা ব্যাংকের ডেবিট কার্ডে এড করতে হবে। তারপর সেই কার্ড ব্যবহার করে টাকা তুলতে পারবেন।

বাংলাদেশে সর্বপ্রথম ডিবিবিএল ব্যাংকই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের সাথে একাউন্ট ভিত্তিক মানি ট্রান্সফার (Money Transfer) সেবা চালু করেছ। যাকে এবিএমটি সার্ভিস (ABMT) বলা হতো। মূলত বাংলাদেশী রেমিট্যান্স গ্রহীতাদের জন্যই ব্যাংকটি এই সেবা চালু করেছিলো।

বর্তমানে ডাচ বাংলা ব্যাংকের ৪৭৭৪ টি এটিএম বুথ সারা দেশব্যাপী গ্রাহকদের সেবা দিয়ে থাকে। তাই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন গ্রাহকদের জন্য এই সেবাটি অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

বিকাশে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের টাকা আনার নিয়ম

বর্তমানে বিকাশে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিংবা এজেন্ট থেকে আনার জন্য এজেন্ট একাউন্ট প্রয়োজন হয়। তাই প্রথমেই একজন বিকাশ এজেন্টের কাছে যান।

বিকাশ একাউন্টে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের টাকা রিসিভ করতে লেনদেনের বিস্তারিত তথ্য ও এমটিসিএন নাম্বার প্রয়োজন হয়। প্রেরক যার বিকাশ একাউন্টে টাকা পাঠাবে তার বিকাশ একাউন্টের তথ্য অনুযায়ী নামের প্রথম ও শেষ অংশ দিতে হবে। তারপর লেনদেন সম্পর্কিত সকল তথ্য প্রাপককে জানাতে হবে।

প্রাপকের কাছে সকল তথ্য থাকলে-

  • আপনার বিকাশ অ্যাপে লগইন করুন। 
  • ড্যাশবোর্ড থেকে ‘আরও’ লেখাতে ক্লিক করে ‘রেমিট্যান্স’ অপশনে যান।
  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন সিলেক্ট করুন।
  • এমটিসিএন (MTCN) নাম্বার ও লেনদেনের কিছু তথ্য চাইবে, সেগুলো পূরণ করুন।

কার্যক্রম সম্পন্ন হলে বিকাশ একাউন্টে ব্যালেন্স এড হয়ে যাবে।

বাংলাদেশ থেকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে বিদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম

বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর জন্য রেমিটেন্স ফাইল ওপেন করতে হয়। তাছাড়া শুধুমাত্র দুটি উপায়ে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে বিদেশে টাকা পাঠানো যায়। যথা:

  • শিক্ষা বাবদ খরচ
  • চিকিৎসা বাবদ খরচ

সাধারণত লেখাপড়ার জন্য স্টুডেন্ট ভিসায় বিদেশে গেলে ব্যাংক সলভেন্সি ও ব্যাংকের অনুমতি নিতে হয়। এই প্রক্রিয়াকে স্টুডেন্ট ফাইল ওপেন (Student File Open) বলা হয়। একইভাবে চিকিৎসার জন্য গেলে, নির্দিষ্ট ব্যাংক থেকে অনুমতি নিয়ে ফাইল ওপেন করতে হয়। এই প্রক্রিয়াকে ব্যাংক টু ব্যাংক/ রেমিট্যান্স ফাইল ওপেন (Remittance File Open) বলা হয়।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিভাবে বিদেশে টাকা পাঠাবেন, তার সঠিক তথ্য জেনে উপরোক্ত উপায়গুলোতে টাকা পাঠান। বিদেশ থেকে রিসিভার আপনার টাকা পাঠানোর তথ্য ও এমটিসিএন (MTCN) নাম্বার ব্যবহার করে- এজেন্ট, ব্যাংক একাউন্ট কিংবা মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করতে পারবে।

নিকটস্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট যেভাবে খুজবেন

আপনার কাছাকাছি ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট অফিস সম্পর্কে জানতে একটি ব্রাউজার ওপেন করুন। তারপর আমার নিকটস্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন (অথবা, Nearest Union Agent)- লিখে সার্চ করুন। অনেকগুলো অপশন পাবেন। সেখান থেকে আপনার নিকটস্থ এজেন্টের সেবা নিতে পারেন।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে কত টাকা পাঠানো যায়

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিংবা এজেন্ট অফিস থেকে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ ৫০,০০০ ডলার পর্যন্ত পাঠানো যাবে। 

তবে বিকাশে একজন গ্রাহক প্রতিবার সর্বোচ্চ ৩৫,০০০ টাকা সেন্ড ও রিসিভ করতে পারবে। বিকাশে লেনদেনের ক্ষেত্রে একদিনে সর্বোচ্চ ১ লক্ষ ১৫ হাজার টাকা লেনদেন করা যাবে। মাসিক সর্বোচ্চ ২০ বার লেনদেন করা যাবে। এক্ষেত্রে মাসিক সর্বমোট ১,৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত উত্তোলন করতে পারবেন।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন ট্রান্সফার চার্জ

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি পরিমান ট্রানজেকশন ফি নেয় তার কয়েকটি ধরণ নিচের তালিকায় তুলে ধরা হলো:

পেমেন্টের মাধ্যমে রিসিভার মাধ্যম লেনদেনের সময়কাল  ট্রানজেকশন চার্জ
ব্যাংক একাউন্ট ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট ৪ কার্যদিবস $৪.৯৯
ডেবিট কার্ড ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট মুহূর্তের মধ্যে $৬.৯৯
ক্রেডিট কার্ড ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এজেন্ট মুহূর্তের মধ্যে $৩৩.৯৯
ব্যাংক একাউন্ট ব্যাংক একাউন্ট ৮ কার্যদিবস $১.৯৯
ডেবিট কার্ড ব্যাংক একাউন্ট ৪ কার্যদিবস $২৪.৯০
ক্রেডিট কার্ড ব্যাংক একাউন্ট ৪ কার্যদিবস $৪৯.৯০

এছাড়াও বিভিন্ন লেনদেনের ক্ষেত্রে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের চার্জ ভিন্ন হতে পারে।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের কিছু অসুবিধা 

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের ব্যাপক সুবিধা থাকলেও কিছু সাধারণ সীমাবদ্ধতা রয়েছে। যেমন-

  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের লেনদেনের চার্জ তুলনামূলকভাবে কিছুটা বেশি।
  • নির্ধারিত পরিমাণ অর্থের বেশি লেনদেন করা যায় না।
  • ব্যবসায় কার্যক্রমের ক্ষেত্রে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে টাকা পাঠানো যায় না।
  • বাংলাদেশ থেকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে বিদেশে টাকা পাঠাতে চাইলে, শুধুমাত্র শিক্ষা এবং চিকিৎসা ক্ষেত্রে পাঠানো যায়।
  • ব্যাংক কিংবা এজেন্টের মাধ্যমে লেনদেন করতে কখনো কখনো ২-৫ কার্যদিবস সময় নেয়।

তবে এ সকল সাধারণ সীমাবদ্ধতা থাকলেও ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন অনেক বেশি উপকারী।

শেষকথা

প্রবাসীর দেশ বাংলাদেশের জন্য ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন অত্যন্ত সুবিধা বহন করে। বিদেশ থেকে প্রবাসীর রেমিটেন্স গ্রহণ এবং বাংলাদেশ থেকে প্রয়োজনে বিদেশে টাকা পাঠানোর উত্তম মাধ্যম এটি। তাই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কি তা জেনে নিন আজই। একটি অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার করে পৃথিবীব্যাপী লেনদেনের সুবিধা নিন।

অনবরত জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

১। MTCN নাম্বার কি?

মানি ট্রান্সফার কনট্রোল নাম্বার বা এমটিসিএন (Money Transfer Control Number- MTCN) হলো ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর পর প্রাপ্ত রেফারেন্স নাম্বার। এটিকে গোপন নাম্বার, রেফারেন্স নাম্বার ইত্যাদিও বলা হয়।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে টাকা পাঠানোর পর এমটিসিএন নামে এই ১০ সংখ্যার নাম্বারটি দেওয়া হয়। এর মাধ্যমে আপনার ট্রানজেকশনের অবস্থা ট্র্যাকিং করতে পারবেন। প্রাপক সেই টাকা রিসিভ করতেও এই এমটিসিএন (MTCN) নাম্বারটি প্রয়োজন হয়।

২। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কিভাবে ট্রান্সফার ট্র্যাক করবো?

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে টাকা পাঠানোর পর ব্যাংকের ট্রান্সফার করলে ২ কার্যদিবস সময় নেওয়া হয়। কিছু ক্ষেত্রে ট্রানজেকশন হোল্ড (Hold) হয়ে থাকে এবং ৫ কার্যদিবস পর্যন্ত সময় নেয়।

এ সময় আপনার ট্রান্সফার ট্র্যাক করতে, যেই একাউন্ট থেকে লেনদেন করেছিলেন তাতে লগইন করুন। এবার ট্র্যাক ট্রান্সফার অপশনে গিয়ে এমটিসিএন (MTCN) নাম্বার লিখে সার্চ করে বর্তমান অবস্থা জানতে পারবেন।

৩। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন কোন কোন দেশে আছে?

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন বর্তমানে বিশ্বব্যাপী প্রায় ২১৮ টি দেশে আন্তর্জাতিক লেনদেন করে থাকে। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, কলম্বিয়া, তুরস্ক, মেক্সিকো, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইত্যাদি আরো অনেক দেশ থেকে টাকা রিসিভ করা যায়।

৪। ইসলামী ব্যাংকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন সেবা পাবো কি?

হ্যাঁ। ইসলামী ব্যাংকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন সেবা চালু রয়েছে। এই ব্যাংকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন থেকে পাঠানো টাকা রিসিভ করতে পারবেন। তাছাড়া শিক্ষা ও চিকিৎসার ক্ষেত্রে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে বিদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। ইসলামী ব্যাংকে রেমিটেন্স পাঠালে রয়েছে বাড়তি পুরস্কারের সুযোগ।

রিলেটেড আর্টিকেল গুলো

Back to top button