টেকনোলজিমোবাইল ফোন

মোবাইল ফোন গরম হলে করণীয়

মোবাইল ফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছে। একে অপরের সাথে যোগাযোগ করা থেকে শুরু করে বই পড়া, গেম খেলা, পছন্দের সিনেমা দেখা ইত্যাদি সকল কাজে মোবাইল আমাদের জীবনের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এই ডিজিটাল যুগে এসে স্মার্টফোনের ব্যবহার সর্বত্র। তবে বর্তমানে স্মার্টফোনের প্রধানতম সমস্যা হিসেবে দেখা দিচ্ছে ফোন অত্যধিক গরম হওয়া। 

প্রায় সকল স্মার্টফোনই ব্যবহার করার সময় কমবেশি গরম হয়ে উঠে। আধুনিক স্মার্টফোনগুলোতে ক্রমাগত শক্তিশালী প্রসেসর, বড় ব্যাটারি এবং দ্রুতগতির চার্জিং প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর সাথে মানুষ এখন মোবাইলে একই সময়ে বিভিন্ন মাল্টিটাস্কিং যেমন চার্জ দেয়া, কথা বলা, ভিডিও দেখা কিম্বা গেমিং এর মত কাজ করে। ফলে মোবাইল ফোনগুলোতেও স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি গরম হওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে দেখা যাচ্ছে। 

তবে মোবাইল গরম হওয়ার কারণ যাই হোক না কেনো, মোবাইলে এরকম হিটিং সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই সতর্ক হতে হবে। মোবাইল অতিরিক্ত গরম হয়ে উঠলে এটি বিভিন্নভাবে নিয়ন্ত্রনের ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে। 

সূচিপত্রঃ

কি করবেন মোবাইল গরম হলে?

১। মোবাইল কেস খুলে রাখুন

অনেকেই মোবাইলের সুরক্ষার জন্য বিভিন্ন ধরনের ফোন কেস ব্যবহার করেন। এসব কেস তাপমাত্রা ধরে রেখে মোবাইলকে উষ্ণ করে তোলে। মোবাইল অতিরিক্ত উত্তপ্ত হয়ে উঠলে সাথে সাথেই ফোন কেস খুলে ফেলতে হবে। এতে করে মোবাইলের ভেতরে উৎপন্ন অধিক তাপমাত্রা বের হয়ে মোবাইলকে ঠাণ্ডা করতে সাহায্য করবে। 

২। চার্জিং ক্যাবল লাগানো থাকলে খুলে ফেলুন 

মোবাইল চার্জ করার সময় যদি গরম হয়ে যায় তাহলে তৎক্ষণাৎ তা চার্জার থেকে খুলে রাখতে হবে। খারাপ ব্যাটারি, নিম্নমানের চার্জার ব্যবহারের ফলে মোবাইল গরম হয়ে যেতে পারে। এজন্য সর্বদাই মোবাইলের বক্সে থাকা আসল চার্জার অথবা যেকোনো ভালো কোয়ালিটির চার্জার ব্যবহার করা উচিত।

অনেকেই মোবাইল সারারাত চার্জে দিয়ে রাখেন। এতে দীর্ঘ সময় চার্জ দেয়ার ফলে ব্যাটারির উপর মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব পরে এবং ফোন গরম হয়ে যায়। মোবাইলের চার্জ সর্বদা ৮০% থেকে ৯০% এর ভেতরে রাখা উচিত। ৮০% এর বেশি চার্জ হলেই চার্জার খুলে দিতে হবে। এছাড়া মোবাইল চার্জ করার সময় গেম খেলা, সিনেমা দেখা বা ফোনে কথা বলার মত কাজগুলো থেকে বিরত থাকতে হবে। তা নাহলে মোবাইল অত্যধিক গরম হয়ে আগুন লাগার মত ঘটনাও ঘটতে পারে। 

৩। রোদ ও গরম থেকে দূরে রাখুন

ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে উঠলে তা সাথে সাথেই রোদ এবং গরম স্থান থেকে দূরে শুষ্ক ও শীতল স্থানে রাখতে হবে। ফোন সূর্য থেকে আসা আলো ও তাপ ধরে রাখে, ফলে এটি সূর্যের আলো ও তাপে যত বেশি সময় থাকে তত বেশি গরম হয়। 

৪। ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুন

মোবাইলে অধিক ব্রাইটনেস দিয়ে রাখলে অনেক সময় মোবাইল গরম হয়ে উঠে। অতিরিক্ত ব্রাইটনেস মোবাইলের ভেতরের প্রসেসর, ব্যাটারি এবং বাইরের স্ক্রিনকে গরম করে তোলে। এর ফলে মোবাইল মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই মোবাইলে অত্যধিক উষ্ণতা অনুভূত হলে এর ব্রাইটনেস কমিয়ে নিতে হবে। 

৫। অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস ডিলিট করুন

প্রয়োজনের অতিরিক্ত অ্যাপস মোবাইলের ব্যাটারি, ইন্টার্নাল স্টোরেজ এবং প্রসেসরের উপর চাপ সৃষ্টি করে। এসব অ্যাপস মোবাইল অত্যধিক গরম করে তোলার জন্যও দায়ী। কিছু অ্যাপস আছে যেগুলো ফোন বন্ধ থাকলেও ব্যাকগ্রাউন্ডে চালু থাকে। এই অ্যাপসগুলো দ্বারা ফোনের প্রসেসিং ক্ষমতা ও ব্যাটারির অতিরিক্ত ব্যবহার ফোনকে গরম করে তোলে। তাই প্রয়োজনের অধিক অ্যাপ মোবাইলে থাকলে সেগুলো ডিলিট করে দিতে হবে। এতে মোবাইল ও ব্যাটারির উপর সৃষ্ট চাপ কমে যাবে এবং মোবাইল শীতল রাখতে সাহায্য করবে।

৬। এয়ার প্লেন মোড চালু করুন

এয়ার প্লেন মোড ফোনের মৌলিক ফাংশন গুলো চালু রাখে, তবে অন্যান্য অপ্রয়োজনীয় ফাংশনগুলো বন্ধ করে যেগুলো ব্যাটারির উপর প্রভাব ফেলতে পারে। বিনা প্রয়োজনে ব্লুটুথ, ইন্টারনেট ডাটা বা ওয়াইফাই চালু করে রাখলেও ফোন গরম হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ফোন এয়ার প্লেন মোডে রাখলে ব্যাকগ্রাউন্ড এর এসব অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ বন্ধ করে রাখে। একারনে ফোন গরম হয়ে গেলে এয়ার প্লেন মোড চালু করে দিতে হবে অথবা ফোন বন্ধ করে রাখতে হবে। 

৭। অন্যান্য যন্ত্রপাতি থেকে আলাদা করে নিন

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা মোবাইল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার ইত্যাদি বিভিন্ন যন্ত্রপাতি একত্রে কানেক্ট করে ব্যবহার করতে পছন্দ করে। ফলে অনেকগুলো ডিভাইসের সঙ্গে একইসাথে প্রসেস করতে গিয়ে মোবাইল গরম হয়ে পরে। এমতাবস্থায় মোবাইল অন্যান্য সকল ডিভাইস থেকে ডিসকানেক্ট করে নিতে হবে। ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের সাথে মোবাইল ক্যাবল দ্বারা সংযুক্ত থাকলে তা খুলে দিতে হবে। 

৮। ফোনকে বিরতি দিন

মোবাইল একটানা দীর্ঘ সময় ব্যবহার করার ফলে গরম হয়ে যেতে পারে। এজন্য ফোন ব্যবহারের সময় মাঝে মাঝে কিছু সময়ের জন্য বিরতি দেয়া প্রয়োজন। ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলা, দীর্ঘ সময় ধরে গেম খেলা, ফেসবুক- ইউটিউব চালানো থেকে বিরত থাকতে হবে। আমাদের দৈনন্দিন কাজের মাঝে যেমন বিশ্রাম দরকার, তেমনি মোবাইলকেও তার প্রয়োজনীয় বিশ্রাম দিতে হবে। 

৯। ব্যাটারি পরিবর্তন করুন

যদি মোবাইল ডিভাইসটি সবসময় গরম থাকে তাহলে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি প্রতিস্থাপন এই সমস্যা দূর করতে সহায়তা করতে পারে। খারাপ ব্যাটারি অনেক ক্ষেত্রেই স্মার্টফোন গরম হওয়ার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এছাড়া পুরনো ব্যাটারি ওভারহিট হয়ে ব্যাটারি ড্যামেজ করে দেয়। তাই ব্যাটারি পরিবর্তন করলে অধিকাংশ ক্ষেত্রে এই মোবাইল ফোন অধিক গরম হওয়ার সমস্যা ঠেকানো যায়।

শেষকথা 

মোবাইল ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া স্বাভাবিক নয়। আমাদের সাধারণ কিছু সাবধানতা অবলম্বনের মাধ্যমে মোবাইলের গরম হওয়া রোধ করা সম্ভব। অধিক সময় ফোন ব্যবহার করলে প্রসেসর এবং ব্যাটারির উপর প্রভাব পরে। ফলে মোবাইল গরম হয়ে যায় এবং প্রসেসরের কার্যক্ষমতা কমে যায়। একই সাথে বেশি অ্যাপস খুলে রাখা যাবেনা। অপ্রয়োজনে মোবাইল ডাটা, হটস্পট, ওয়াইফাই চালু করে রাখা উচিত নয়। মোবাইলের চার্জ শুণ্যতে নামিয়ে আনা থেকে বিরত থাকতে হবে। 

সচরাচর জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

১। মোবাইল কতটা গরম হওয়া স্বাভাবিক? 

উত্তরঃ সাধারণত বর্তমান স্মার্টফোনগুলোতে ৩৫-৪০ ডিগ্রী সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রা স্বাভাবিক বলে ধরা যেতে পারে। তবে মোবাইলের তাপমাত্রা এর চেয়ে বেশি হলে তা স্বাভাবিক হিসেবে গন্য করা যাবে না। 

২। গরম হয়ে যাওয়া ফোন কি ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করা যাবে?

উত্তরঃ গরম হয়ে যাওয়া ফোন কখনই ফ্রিজে রাখা উচিত নয়। এতে হঠাৎ তাপমাত্রার পরিবর্তনের জন্য ডিভাইসের ভেতরের প্রসেসর, ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। 

৩। মোবাইলের তাপমাত্রা পর্যবেক্ষণ করার জন্য কি কোনো অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে?

উত্তরঃ অবশ্যই ব্যবহার করা যাবে। মোবাইলের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য কুলিং মাস্টার বা ফোন কুলারের মত অ্যাপ ব্যবহার করা যেতে পারে।

৪। কিভাবে মোবাইলের জন্য সঠিক চার্জার বাছাই করবো? 

উত্তরঃ মোবাইলে চার্জ দেয়ার জন্য সবসময় অরিজিনাল চার্জার ব্যবহার করাই শ্রেয়। কোনো কারণে চার্জার কেনার প্রয়োজন হলে আপনার ফোন কত ওয়াটের চার্জার সাপোর্ট করে তার সাথে মিলিয়ে তত ওয়াটের চার্জার কিনতে হবে। কত ওয়াটের চার্জার প্রয়োজন এই তথ্য কোম্পানির ওয়েবসাইট এবং চার্জারের গায়ে লেখা থাকে।  

৫। মোবাইলে কত শতাংশ চার্জ থাকা অবস্থায় পুনরায় চার্জ দেয়া যাবে?

উত্তরঃ মোবাইলের চার্জ ২০% এ চলে আসলে পুনরায় চার্জ করা উত্তম। মোবাইলের চার্জ ১৫% এর নিচে নামানো উচিত নয়, নাহলে ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।  

৬। সফটওয়্যার নিয়মিত আপডেট করলে কি মোবাইলের গরম হওয়া রোধ করা সম্ভব? 

উত্তরঃ হ্যাঁ, সফটওয়্যার নিয়মিত আপডেট করলে মোবাইলের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান হয়ে যায়। এতে মোবাইল হালকা হয়ে শীতল রাখতে সাহায্য করে। 

রিলেটেড আর্টিকেল গুলো

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button